আলবারো মোরাতার ইনজুরি নিয়ে দুশ্চিন্তায় চেলসি বস অ্যান্তোনিয় কন্তে

চেলসি ফরোয়ার্ড আলবারো মোরাতার ইনজুরি নিয়ে গনমাধ্যমের সামনে মুখ খুলেছেন চেলসি কোচ অ্যান্তোনিয় কন্তে।

পিঠের ইনজুরি নিয়ে অনেকদিন থেকেই খেলার বাইরে এই স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড। মোরাতা কবে নাগাদা দলে ফিরতে পারবে তা নিয়ে সন্দিহান কন্তে।  ক্লাব রেকর্ড ৫৮ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে গত বছর সামারের ট্রান্সফার উইন্ডোতে রিয়াল মাদ্রিদ থেকে তাকে দলে ভিড়ায় চেলসি। এই ফরোয়ার্ড ২০টি ম্যাচ খেলে ১০টি গোল করেছেন। ৩ সপ্তাহ আগে এফএ কাপের তৃতীয় রাউন্ড নরউইচ এর বিপক্ষে ম্যাচে অতিরিক্ত সময়ের খেলা চলাকালীন পিঠে ব্যাথা পান এই স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড। চেলসির মেডিকেল স্টাফ টিম অনেক চেষ্টা করেও তাকে আর ম্যাচে  ফিরাতে পারেননি।

মোরাতার ইনজুরি নতুন করে ভাবাচ্ছে কন্তেকে, তাই তিনি মোরাতা সুস্থ হবার আগ পর্যন্ত সদ্য গানার শিবির হতে আগত অলিভার জিরুডকে সুযোগ দিতে চান। ১৮ মিলিয়ন পাউন্ড দিয়ে এই প্লেয়ারকে দলে ভেড়ায় চেলসি। কন্তে গনমাধ্যমকে বলেছেন, “আমরা কয়েকদিন ধরেই অনেকগুলো দলের সাথে হেরেছি, কিন্তু আপনাকে মনে রাখতে হবে মোরাতার মতো প্লেয়ার দলে খুবই প্রয়োজন। তার অনুপস্থিতি আমরা হারে হারে টের পাচ্ছি। আর কবে নাগাদ তাকে আবারো  দলে পাবো তা নিয়েও আমি সন্দিহান “। তিনি আরো জানান, “সত্যি কথা বলতে আমরা তার পিঠের ইনজুরি সারানোর কোনো স্থায়ী সমাধান এখনো পাইনি। হয়তোবা তার সুস্থ হতে ১ মাস বা ২ মাসের বেশি লাগতে পারে তবে সেক্ষেএে যে তাকে আমরা এই সিজনেও মিস করতে পারি, যা আমাদের দলের জন্য দুঃসংবাদ।“

তিনি আরো বলেছেন, “তাকে চ্যাম্পিয়নস লিগের খেলাগুলোতে খুবই বেশি দরকার ছিলো। কারন ২০ ফেব্রুয়ারি বার্সেলোনার মতো জায়ান্টের সাথে ম্যাচে মোরাতা আমার তুরুপের তাস হতে পারতো।“

স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ঘরের মাঠে বার্সাকে আতিথ্য দিবে চেলসি। মার্চের মাঝামাঝি সময়ে বার্সার ডেরায় ২য় লেগ খেলতে যাবে কন্তের চেলসি। এই বছরেরে শুরটা কন্তের জন্য মোটেও সুখকর ছিলোনা। তার কোচিংয়ে এই বছর মাএ ১০ ম্যাচে ২টি তে জয় পেয়েছে চেলসি। তিনি প্রায় সাইড বেঞ্চের সব প্লেয়ারকে দিয়েই চেষ্টা করেছেন। কন্তে সাংবাদিকদের আরো বলেছেন, “আমি এক মূহুর্তের জন্যেও এই ক্লাব থেকে চলে যাবার চিন্তা মাথায় আনিনি। একজন কোচের যে কোনো ক্লাবে থাকা নিভর্র করে সে ক্লাবকে কতটা সফল করতে পেরেছে তার উপর।  আমি আমার কথা রাখার চেষ্টা করছি, এখন খারাপ সময় যাচ্ছে, আশাকরি খুব শ্রীঘই সুদিন ফিরে আসবে।“

আরমান হাসান (প্রতিবেদক), মাঠের খেলা

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *