রাজ্জাকের রাজসিক ফেরা

প্রত্যাবর্তনের ম্যাচটা স্মরনীয় করে রাখলেন বর্ষীয়ান স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক।

আবার জাতীয় দলে আসবেন এই বিশ্বাসটাই যেন হারিয়ে ফেলেছিলেন অভিজ্ঞ স্পিনার রাজ্জাক। তবে লংকানদের বিপক্ষে ঢাকা টেষ্টে এটাই সত্যি। ঘরোয়া ক্রিকেটে সদ্যই ৫০০ উইকেটের মালিক হওয়া এই বর্ষীয়ান স্পিনার চার বছর পর আর্ন্তজাতিক ক্রিকেটে ফিরেই ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করলেন।

প্রায় বাতিলের খাতায় পড়ে যাওয়া এই বাঁহাতি বোলিং শুরু পর থেকেই সমালোচকদের জবাব দেন অভিজ্ঞতার ঝলক দিয়ে।

ষষ্ঠ ওভারের প্রথম বলে করুনারত্বকে বোকা বানিয়ে দলকে প্রথম ব্রেকথ্রু এনে দেন ৩৫ বছর বয়সি এই স্পিনার। প্রথম স্পেলে ৫ ওভারে ১৮ রান দিয়ে এক উইকেট।

দ্বিতীয় স্পেলে একাই হাথুরুসিংহের ডেরায় কাপন ধরিয়ে দেন রাজ্জাক। দ্বিতীয় স্পেলটাতো আরো ভয়ঙ্কর, স্পেলের প্রথম বলেই গুনাথিলাকে মুশফিকের তালুবন্দি করেন তিনি।

আর পরের বলটা হয়তো আপনি রিপ্লেতে বারবার দেখতে চাইবেন। অসাধারন এক টার্নিং ডেলিভারিতে চান্দিমালকে বোল্ড করেন হ্যাটট্রিকের সুযোগ তৈরী করেন রাজ্জাক।

দ্বিতীয় সেশনের প্রথম বলে আবারো ঝলক রাজ্জাকের। এবার তার স্পিনের শিকার ফিফটি করা কুশল মেন্ডিজ। নিজের দ্বিতীয় স্পেলে ৭ ওভার বল করে ২৭ রান দিয়ে তিন উইকেট নেন এই বাঁহাতি।

প্রথম দিনই ক্যারিয়ার সেরা বোলিং ফিগার রাজ্জাকের। এর আগে টেস্টে এক ইনিংসে তার সেরা বোলিং ফিগার ছিল ৩/৯৩। ২০০৮ সালে চট্টগ্রামে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিনি তার এই সেরা ইনিংসটি খেলেছিলেন। অন্যদিকে, টেস্টে এক ম্যাচে আব্দুর রাজ্জাকের সেরা বোলিং হলো ৪/১৪৪।

তোফায়েল আহমদে খান (প্রতিবেদক), মাঠের খেলা

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *