ব্যাট-বলে দুর্দান্ত টিম ইন্ডিয়া

৩য় ম্যাচে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১২৪ রানে বিধ্বস্থ করলো ভারত।

বিরাট কোহলীর অসাধারন ইনিংসের উপর ভর করে প্রোটিয়াদেরকে ৩০৩ রানের পাহাড়সম টার্গেট দেয় অতিথিরা। জবাবে ভারতীয় স্পিনারদের ঘূর্ণিতে মাত্র ১৭৯ রানে অলআউট হয় স্বাগতিকরা।

৬ ম্যাচের ওডিআই সিরিজের ১ম দুটিতে জিতে মানসিকভাবে এগিয়ে থেকেই কেপটাউনে ৩য় ম্যাচে প্রোটিয়াদের মুখোমুখি হয় টিম ইন্ডিয়া। অন্যদিকে প্রথম দুই ম্যাচে হেরে দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া স্বাগতিকদের সামনে জয় ভিন্ন ছাড়া আর কোন উপায় ছিলোনা এদিন। নিয়মিত অধিনায়ক ডু প্লেসিস ছাড়াও ইনজুরির কারনে এদিন ডি কককেও বাদ দিয়ে নামতে হয় প্রোটিয়াদের।

টসে জিতে অতিথিদের ব্যাট করতে পাঠায় ভারপ্রাপ্ত কাপ্তান মার্করাম। তবে শুরুতেই রাবাডার বলে রোহিত শর্মা আউট হলে চাপে পড়ে যায় ভারত। তবে ধাওয়ান এবং বিরাট কোহলীর ২য় উইকেট জুটিতে ১৪০ রান আসলে বড় স্কোরের দিকেই এগুতে থাকে অতিথিরা। তবে মিডল অর্ডারে দ্রুত উইকেট পড়লেও এক প্রান্ত আগলে রেখে সেঞ্চুরী তুলে নেয় ভারতীয় কাপ্তান। মূলত বিরাটের ১৬০ রানের উপর ভর করেই ৩০৩ রানের বড় সংগ্রহ পায় ভারত। স্বাগতিকদের হয়ে ডুমিনি নেন ২ উইকেট।

জবাবে, চাহাল এবং কুলদীপের স্পিন ভেল্কিতে দিশেহারা হয়ে পড়ে প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান। শুরুটার আঘাতটা আসে বুমরাহ থেকে, আমলাকে লেগ বিফোরের ফাদে ফেলে ভারতীয় এই পেস সেনশেসন। তারপর অবশ্য শুরু হয় ভারতীয় স্পিনারদের স্পিন শো। চাহাল এবং কুলদিপ দুজনেই নেন ৪টি করে উইকেট। স্বাগতিকদের হয়ে একমাত্র ডুমিনি করেন অর্ধশতক। এছাড়া বলার মত আর কেউই ভারতীয় বোলারদের সামনে দাড়াতেই পারেনি কোন ব্যাটসম্যান। দক্ষিন আফ্রিকার ইনিংস থামে ১৭৯ রানে।

এই জয়ে ৬ ম্যাচ সিরিজে ৩-০ তে এগিয়ে গেল ভারত।

তোফায়েল আহমদে খান (প্রতিবেদক), মাঠের খেলা

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *