মোহাম্মদ সালাহকে মেসির সাথে তুলনা করেছে ফুটবল বিশ্লেষক জেমি কারেগের

অ্যানফিল্ডে লিভারপুল ও টটেনহামের মধ্যকার ম্যাচে এই মিসরীয় ফুটবলারের কৃতিত্বের কারনে পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হয়েছে দুদলকে।

এই ম্যাচে মোহাম্মদ সালাহ অসাধারণ দুটি গোল করে ম্যান অব দা ম্যাচের পুরষ্কার নিজের করে নেয়।  এই ম্যাচে দুদলই সমানভাবে নিজেদের আধিপত্য বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে। এই ম্যাচে টটেনহামের হয়ে এক অনন্য রেকর্ডের মাইলফলক ছুঁয়েছেন হ্যারি কেন। তিনি এই ম্যাচে টটেনহামের হয়ে নিজের ১০০তম গোল করেন এই ইংলিশ ফরোয়ার্ড।

আর অন্যদিকে লিভারপুলের হয়ে দ্রুততম ২০ গোলের রেকর্ড করেন মোহাম্মদ সালাহ। এই ম্যাচে সবার দৃষ্টি কেড়ে নিতে পেড়েছেন একজন,  আর তিনি মোহাম্মদ সালাহ। এই ম্যাজিশিয়ানের পায়ের জাদুতে মেতে ছিলো পুরো অ্যানফিল্ড। গত সামার সেশনে রোমা থেকে এই প্লেয়ারকে নিজেদের ডেরায় ভিড়িয়েছিলো দা রেডস।

এই ম্যাচের ৩ মিনিটে প্রথম গোল করে নিজের কারিশমা দেখাতে শুরু করেন এই মিশরীয় জাদুকর। তার দ্বিতীয় গোলে তিনি সবাইকে মুগ্ধ করেছেন। সাবেক লিভারপুল ডিফেন্ডার জেমি কারেগের সালাহর খেলা দেখে তাকে ক্ষুদে জাদুকর মেসির সাথে তুলনা করেছেন। তিনি বলেছেন, “সালাহ এবং মেসির গোল করার স্টাইল পুরো অভিন্ন। তার দক্ষতা আর মেসির দক্ষতার মধ্যে তেমন কোনো ব্যবধান নেই। আসলে গোলরক্ষককে কোনো সুযোগ না দিয়ে এভাবে পরাস্ত করতে আমি সালাহ ও মেসিকে দেখেছি।“

সালাহকে প্রিমিয়ার লিগে প্লেয়ার অব দা ইয়ার পুরষ্কারেরে সবচেয়ে বড় দাবিদার হিসেবে দেখা হচ্ছে। এই পুরষ্কারে তার প্রতিদ্বন্ধি হিসেবে দেখা যাবে সিটিজেন শিবিরের মূল অস্ত্র কেবিন ডি ব্রুইনকে। কারেগের মতে সালাহর গোল সংখ্যা আরো বাড়তো যদি তিনি লিভারপুলের সব প্যানাল্টি নেয়ার সুযোগ পেতেন। টটেনহামের সাথে এই ম্যাচে পয়েন্ট ভাগাভাগির মধ্য দিয়ে ২৬ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৩ নম্বরে উঠে এসেছে দা রেডস। আর ২৫ ম্যাচে ৫০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৪ নম্বরে আছে চেলসি। টটেনহাম ২৬ ম্যাচে ৪৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৫ নম্বরে অবস্থান করছে।

লিগে ২২ গোল নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে হ্যারি কেন। আর ২১ গোল নিয়ে ২ নম্বরে আছেন মোহাম্মদ সালাহ।

আরমান হাসান (প্রতিবেদক), মাঠের খেলা

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *