ইনজুরি নিয়ে‌ই অষ্ট্রেলিয়ান ওপেনে অংশগ্রহন করেছিলেন জকোভিচ

সাবেক ওয়ার্ল্ড নাম্বার ওয়ান নোভাক জকোভিচ গনমাধ্যমের কাছে স্বীকার করেছেন যে তিনি কনুইয়ের  ইনজুরিতে পড়েছেন।

১২ বারের গ্রান্ডস্লামজয়ী এই খেলোয়াড় স্বীকার করেছেন,  “যখন আমি হাঁটুতে  ব্যাথা পেয়েছিলাম তখন আমি ডাক্তারদের পরামর্শ খুব বেশি অনুসরণ করিনি, পরবর্তীতে বিশ্রাম নিলেও সেভাবে আরোগ্য লাভ করতে পারিনি।“

তিনি তার অফিশিয়াল পেজ নোবাকজকোবিচ.কমে পোস্ট করেছেন যে ” সত্যি কথা বলতে আমার জন্য অনেকগুলো আলাদা অপশন ছিলো। আমার জন্য সিদ্ধান্ত নেয়ার অনেক রাস্তা ছিলো, কিন্তু আমি বুঝতে পারছিলামনা কোনটা সঠিক সিদ্ধান্ত হবে। আসলে গত বছর ইনজুরিতে পড়ে আমি ৬ মাসের জন্য মাঠের বাইরে ছিলাম, সেই ইনজুরির ব্যথা এখনো আমি অনুভব করি। আমার ইনজুরি থেকে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে মাঠে ফেরা উচিৎ ছিলে। কিন্তু আমার রক্তে টেনিস থাকায় আমি ইনজুরি নিয়েই মাঠে ফিরে এসেছিললাম। আর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে আবারো নতুন করে কনুইয়ের ইনজুরিতে পড়েছি। আমি আমার ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত, কবে নাগাদ সুস্থ হয়ে কোর্টে ফিরতে পারবো তারও কোনো নিশ্চয়তা নেই। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের আগে আমি কনুইতে ছোট খাটো একটা চিকিৎসা করিয়েছিলাম”।

তিনি অপারেশনের জন্য চেক রিপাবলিকে গিয়েছিলেন, কিন্তু ব্যথা নিয়ে খেলে ৪র্থ রাউন্ডে বাদ পড়ে যান তিনি। নোভাক জানান, “এখন আমি পুরোপুরি বিশ্রামে থাকার চেষ্টা করবো, তারপর সুস্থ হলে কি করবো তা পরেই দেখা যাবে।“

জকোবিচের মাঠে ফিরতে আরো ৭-৮ মাস সময় লাগতে পারে বলে জানিয়েছেন তার ফিজিও। এই সময়ের মধ্যে আকাপুল্কো, ইন্ডিয়ান ওয়েলসের মতো বড় কিছু টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে গেলেন তিনি। তার মতো কনুইয়ের ইনজুরিতে আছেন ১ নম্বরে থাকা রাফায়েল নাদালও। এই দুই তারকার মাঠে ফেরার জন্য অপেক্ষায় আছেন তাদের সমর্থকরা।

আরমান হাসান (প্রতিবেদক), মাঠের খেলা

 

 

Be the first to comment on "ইনজুরি নিয়ে‌ই অষ্ট্রেলিয়ান ওপেনে অংশগ্রহন করেছিলেন জকোভিচ"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*