টেনিস কোর্টের মায়া ছেড়ে থাকতে পারবেন না রজার ফেদেরার

ম্যাচ শেষে গনমাধ্যমকে এই কথা বলেছেন তিনি।

২০১৯ সালে আবারো অস্ট্রোলিয়ান ওপেনে খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তিনি।  ২০১৮ সালের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জিতে নিজের ২০তম গ্রান্ডস্লাম ছুঁয়ে ফেলেন তিনি।  শুধু তাই নয়,  তিনি আরো বলেছেন, “২০১৯ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে না খেলার কোনো কারন আছে বলে  আমি মনে করিনা । ফিট থাকলে আবারো ফিরে আসবো মেলবোর্নে। ম্যাচ শেষে সবার সামনে বলতে ভুলে গেছিলাম, তাই এখন বলতে হচ্ছে।“

তিনি আরো বলেছেন, “আজ আমার পরিবারের সাথে সময় কাটাতে পেরে আমি খুশি, আজ নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারব। ২০তম গ্রান্ডস্লাম জয়ের পথটা সহজ ছিলো না, এটা আমার জন্য খুবই স্পেশাল একটি গ্রান্ডস্লাম। অনেক বছর পর আবারো অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জিতে ভালে লাগছে। আমি সামনে যতদিন খেলি এই রকম আরো শিরোপা জিততে চাই।“

ফেদেরার তার এই ট্রফি স্টেডিয়ামের বাহিরে বোটানিক্যাল গার্ডেনে হাজার হাজার দর্শকের সামনে তুলে ধরেন। লেবার রেডিওতে ফেদেরারকে বিশ্বের সেরা টেনিস তারকাদের মধ্যে অন্যতম বলে জানানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, “টেনিসের বড় আসর গুলোতে রজার নিজেকে যেভাবে তুলে ধরে তা এক কথায় অসাধারণ। নাদালও ভালো প্লেয়ার কিন্তু রজারের মতো নিজেকে তুলে ধরতে পারেননি। সত্যি কথা বলতে গেলে রজার একজন লিজেন্ড,তার সাথে কারো তুলনা হয়না।“

ম্যাচ শেষে ভাষনে রজার আবেগপ্রবন হয়ে গিয়েছিল। রজার রানার্স আপ মারিন সিলিচকে অভিনন্দন জানিয়েছেন এবং তার ভবিষ্যতের জন্য শুভ কামনা জানিয়েছেন। ফেদেরার ২০তম গ্রান্ডস্লাম তার সহধর্মীনিকে উৎসর্গ করেছেন। তিনি বলেছেন, “আমার আজ এখানে আসার পিছনে সবচেয়ে বেশি অবদান আমার স্ত্রী মিরকার। তার সার্পোট ছাড়া আমার জন্য কোনোকিছু সম্ভব ছিলো না। আমার জীবনে সবসময় সে আমার পাশে ছিলো। আমার ছেলেমায়েরা আমায় নিয়ে গর্ববোধ করে, এর থেকে আর বড় প্রাপ্তি কি হতে পারে।“

ফেদেরার এখন তার ফ্যামিলির সাথে কিছু সময় কাটাতে চায়, তারপর সে ঠিক করবে সে দুবাইতে অনুষ্ঠিতব্য এটিপি ওয়ার্ল্ড টুরে যাবে কিনা।

আরমান হাসান (প্রতিবেদক), মাঠের খেলা

 

Be the first to comment on "টেনিস কোর্টের মায়া ছেড়ে থাকতে পারবেন না রজার ফেদেরার"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*