অভিষেকেই বাজিমাত করলেন সেহান মাধুশংকা

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশের বিপক্ষে হ্যাট্রিক করেন এই শ্রীলঙ্কান ফাস্ট বোলার।

ক্রিকেট ইতিহাসে  ৪র্থ বোলার হিসেবে এই কীর্তি করেছেন তিনি। বাংলাদেশের তাইজুল ইসলামও তার অভিষেকে এই রেকর্ড গড়েছিলেন। শ্রীলঙ্কান ঘরোয়া লিগে দুর্দান্ত পারর্ফমেন্সের কারনে চান্ডিকা হাথুরুসিংহের নজরে পড়েন তিনি। তারই সুবাদে সদ্য সমাপ্ত সিরিজে স্কোয়াডে ডাক  পান তিনি।

গ্রুপ  পর্বের কোনে ম্যাচে একাদশে সুযোগ পাননি তিনি। তবে ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তাকে নামিয়ে সফল হাথুরাসিংহে। শ্রীলঙ্কার ১৮৬ তম ওডিআই প্লেয়ার হিসেবে এই ম্যাচে তার অভিষেক হয়। ঘরোয়া লিগে তামিল ইউনিয়ন এর হয়ে তিনি খেলেছেন।

তার ফার্স্ট ক্লাস অভিষেক হয় জিম্বাবুয়ে উন্নয়ন একাদশের বিপক্ষে। তিনি তার লিস্ট এ অভিষেক করেন কিলোনচী জেলার হয়ে ২০১৭ সালের ১৫ মার্চ। তিনি দ্বিতীয় শ্রীল্ঙ্কান হিসেবে অভিষেকে হ্যাট্রিক করেন। ডানহাতি এই ফাস্ট বোলার এখন পর্যন্ত  ৭টি ফাস্ট ক্লাস ম্যাচ খেলেছেন।

যদিও জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট এবং ওডিআইতে খেলেননি তিনি। তার প্রথম ম্যাচের পারর্ফমেন্সে খুবই খুশি শ্রীল্ঙ্কান টিম ম্যানেজমেন্ট। তিনি রুবেল, মাশরাফি ও মাহমুদুল্লার উইকেট তুলে নিয়ে নিজের হ্যাট্রিক পূরণ করেন।

ম্যান অব দা ম্যাচ  উপুল থারাঙ্গা ম্যাচ শেষে বলেছেন, “মাধুশংকার বোলিংএ আমি খুবই খুশি, কারন অভিষেকে সে যেভাবে বোলিং করেছেন তা এক কথায় অসাধারণ। তার এই দুর্দান্ত বোলিং এর কারনে শিরোপা জিততে সহজ হয়েছে। আমি মনে করি যদি সে এভাবে খেলতে থাকে, তাহলে যে তার ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল তা আমি বিশ্বাস করি।“

ভবিষ্যতে হাথুরুর তুরুপের তাস হতে  পারেন এই পেস সেনসেশন।

আরমান হাসান (প্রতিবেদক), মাঠের খেলা

 

 

Be the first to comment on "অভিষেকেই বাজিমাত করলেন সেহান মাধুশংকা"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*