যে যে সিদ্ধান্তে বেড়া ডিঙ্গাতে পারেনি ডায়নামাইটসরা

আগামী ১১ মাস যে ভুলগুলোর মাশুল গুনে গুনে তাদের পরবর্তি বিপিএল এর জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। যে ভুলগুলো সামলাতে পারলে হয়ত ডায়নামাইটসরাই পেতো শিরোপা।

আসন্ন টেষ্ট অধীনায়কের থেকে এমন কিছু ভুল সব ভক্তদেরই হয়ত কিছুটা চিন্তার ভাজ ফেলেছে কপালে। তবে ব্রান্ডাম ম্যাককুলাম ও ক্রিস গেইলের দুটি ক্যাচ ফেলে দেয়াটা বড় রকমের ভুলের মাসুল হয়ে দাড়াচ্ছে এই হারের কারনের মধ্যে।

ফাইনাল পর্যন্ত দলীয় পারফরমেনসের দিকে তাকালে দেখা যাবে ঢাকা অন্য যে কোন দলের তুলনায় সেরা। কাগজে কলমেও তার ঢাকার তুলনা ঢাকাই। বিশেষ করে ইভান লুইস, শহিদ আফ্রিদি, সুনিল নারায়ন ও কাইরুন পোলার্ডের মত পারফরমাররা যে দলের হয়ে খেলেছে তার অবস্থান টপে থাকাই বাঞ্চনীয়। কিন্তু কেন ঢাকা ডায়নামাইটসের এমন হার? কেন তারা রংপুর রাইডার্সকে বেধে রাখতে পারলো না নির্দিষ্ট বেড়ার মধ্যে?

প্রথম কারন:

ব্যাক্তিগত ২২ রানের মাথায় ক্রিস গেইলের ক্যাচ ফেলে দিয়েছে সাকিব।  আর সেই ২২ রান থেকে ক্রিস গেইল করেছে ১৪৬।  ছষ্ঠ ওভারের প্রথম বলে মোসাদ্দেকের বলে গেইল কভারে একটা ক্যাচ দিয়েছিলো কিন্তু সাকিব তা ধরতে পারেনি। এটা অন্যতম কারন রাইডারসরা এত বড় এক স্কোরে এনে ঠেকিয়েছে তাদের তরী।

দ্বিতীয় কারন:

খালেদের মত এক নবীন ক্রিকেটারকে ম্যাককুলাম বড় সট খেলতে যেয়ে টপ এজে পড়েন। বোলার সেই টপ এজ ধরতে অনেক দুর দৌড়ে যান এবং ক্যাচটি ড্রপ করেন। ম্যাককুলাম নতুন করে জীবন পান এবং স্কোর বড় করতে রংপুরকে সাহায্য করেন।

তৃতীয় কারন:

সাকিবের প্রথম দুই ওভারে অনেক কম রান  আসে। প্রথম ওভারেই তুলে নেয় গত ম্যাচের ভয়ংকার হয়ে ওঠা চার্লসকে। দুই ওভার বোলিং করে শেষ ওভারে নিজের তৃতীয় ওভার বোলিং করতে যান তিনি। তার আগের ওভারে বোলিংএ পাঠান নবাগত খালেদকে। তার এই সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়।

আসন্ন শ্রীলংকা সিরিজের টেষ্টে সাকিবের এমন সব সিদ্ধান্ত হবেনা বলেই আশা ক্রিকেট ফ্যানদের।

কামরুল হাসান শিবলী (প্রতিবেদক), মাঠের খেলা

 

 

Be the first to comment on "যে যে সিদ্ধান্তে বেড়া ডিঙ্গাতে পারেনি ডায়নামাইটসরা"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*