সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশনের জন্য আবারও প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছেন মোহাম্মদ হাফিজ

আবুধাবিতে শ্রীলংকার বিরুদ্ধে খেলার সময় পাকিস্থানের অফ স্পিনার মোহাম্মাদ হাফিজ সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশনের জন্য অভিযুক্ত হয়েছেন।

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল গত বৃহস্পতিবার একথা জানায়। আইসিসি পাকিস্থান টিম বরাবর এক বিবৃতি পেশ করে এবং সেখানে ৩৭ বছর বয়সী এই বোলারের গত বুধবারের ম্যাচে বোলিং অ্যাকশনের বৈধতা পরীক্ষা করার জন্য বলা হয়েছে।

হাফিজের বোলিং এখন আইসিসির লিগাল বোলিং একশনের নিয়ম অনুযায়ী হচ্ছে কিনা সেটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আগামী ১৪ দিনের মধ্যে এই পরীক্ষার ফলাফল জানা যাবে এবং চুড়ান্ত ফলাফল হাতে আশার আগ পর্যন্ত তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পারবেন। এটা দিয়ে মোট ৩য় বারের মত তিনি এই ধরনের অভিযোগে অভি্যুক্ত হলেন। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে তিনি প্রথম বোলিং থেকে বহিষ্কৃত হন এবং ২০১৫ সালের জুন মাসে ২য় বারের মত ২৪ মাসের জন্য বহিষ্কৃত হন। ২০১৬ সালের ১৭ নভেম্বর,  ব্রিজবেনে ন্যাশনাল ক্রিকেট সেন্টারে হাফিজের বোলিং অ্যাকশন পুনর্বিবেচনা করা হয় এবং তাকে পুনরায় বোলিং করার অনুমতি দেওয়া হয়। হাফিজ মোট ৮ অভার বল করে ৩৯ রান দেয় এবং একটি উইকেট সংগ্রহ করে সেই সিরিজে পাকিস্থান ৩-০ ম্যাচে জয়লাভ করে।

এর আগে পাকিস্থানের ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার, সাব্বির আহাম্মেদ, স্পিন বোলার সাইদ আজমল, শহীদ আফ্রিদি ও আসিফের মত বোলারের বিরুদ্ধেও একই ধরনের অভিযোগ ছিল।  বিলাল আসিফ পরবর্তীতে পুর্নবিবেচনায় ফেরত আসলেও এই অভিযোগের কারণে আজমলের ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যায় ।

আই সি সির নিয়ম আনুযায়ি প্রত্যেক বোলার সর্বোচ্চ ১৫ ডিগ্রী পর্যন্ত তার কনুই বাকা করতে পারবে। এর অতিরিক্ত হলে সেটা অবৈধ বলে ধরা  হয়।

মানিক ইমদাদ (প্রতিবেদক), মাঠের খেলা

 

 

Be the first to comment on "সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশনের জন্য আবারও প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছেন মোহাম্মদ হাফিজ"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*