অধিনায়কত্ব নিয়ে আত্মপক্ষ সমর্থন করলেন স্টিভ স্মিথ

স্টিভেন স্মিথের অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রাক্তন অজি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক।

সময়টা ভালো যাচ্ছেনা স্টিভেন স্মিথের। প্রথমে বোর্ডের সাথে বেতন নিয়ে দ্বন্দ্ব, সব ঝামেলা মিটিয়ে যখন তারা বাংলাদেশ সফরে আসলো তখন স্মিথ বাহিনী র‍্যাংকিংয়ের ৯ নম্বরে থাকা বাংলাদেশের সাথে প্রথম টেষ্টে হেরে যায় যা কিনা অষ্ট্রেলিয়াকে ব্যাপক সমালোচনার মধ্যে ফেলে দেয়। তারপর তারা যায় ভারতে ৫টি একদিনের ম্যাচ খেলতে। কিন্তু এখানেও বিপত্তি। ১ম ম্যাচে যেভাবে অসহায় আত্মসর্মপণ করে স্মিথের দল তাতে অষ্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন অনেক খেলোয়াড়ই তীব্রভাবে কটাক্ষ করছেন।

মাইকেল ক্লার্ক তো স্মিথের অধিনায়কত্ব নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন। ক্লার্ক বলেছিলেন- ক্রিকেট মূলত ব্যাট-বলের লড়াই না, এটা হচ্ছে দু্‌ই দলের অধিনায়কদের মধ্যে ব্যাটিং মস্তিষ্কের, কিন্তু সেই খেলায় কোহলির কাছে হেরে যাচ্ছে স্মিথ। যদিও মাইকেল ক্লার্কের সমালোচনার জবাবে অধিনায়ক হিসেবে ১০০তম ম্যাচের আগে স্মিথ দাবী করলেন যে তিনি এখনও অধিনায়ক হিসেবে ফুরিয়ে যাননি। বৃহস্পতিবার কলকাতার ইডেন গার্ডেনে অষ্ট্রেলিয়া তাদের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে। স্মিথ তার ১০০তম ম্যাচটি জিতে সিরিজে সমতা আনতে চাচ্ছে। তারপর তারা সিরিজের ৩য় ম্যাচ খেলতে যাবে ইনদোরে।

চেন্নাইতে ১ম ম্যাচ সম্পর্কে ক্লার্ক মিডিয়াকে জানান যে ভারত যখন ৮৭ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ভুগছিলো তখন স্মিথের তার স্ট্রাইক বোলারকে না আনা ভুল ছিলো। ক্লার্ক বলেন,”স্মিথ দলের সেরা খেলোয়াড় এবং বর্তমানে কোহলি এবং স্মিথ হলেন বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যান।“ তিনি আরোও বলেন,”আমার ধারনা সিরিজ শেষে স্মিথ এবং ওয়ার্নারই হবেন শীর্ষ রান সংগ্রাহকারী ব্যাটসম্যান।কিন্তু আমি এটাও মনে করি তার অধিনায়কত্ব এখন প্রশ্নের মুখে।“

তবে স্মিথ এসব মানতে নারাজ। তিনি বলেন, “আমি মনে করিনা যে আমার অধিনায়কত্ব খারাপ। অবশ্য সিরিজের শুরুটা আমাদের ভালো হয়নি, তবে ভুলগুলো শুধরে নতুন করে শুরু সুযোগ পরের ম্যাচের থাকছে আমাদের সামনে।

২০১০ সালে তার ক্যারিয়ারের শুরুতে একজন সম্ভাবনাময় লেগস্পিনার হিসেবে তার আত্মপ্রকাশ ঘটেছিলো, কিন্তু আস্তে আস্তে স্মিথ নিজেকে বিশ্বের বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান হিসেবে গড়ে তুলেছেন।

Be the first to comment on "অধিনায়কত্ব নিয়ে আত্মপক্ষ সমর্থন করলেন স্টিভ স্মিথ"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*